প্রচ্ছদ

কদমতলীতে হোটেলে রুটি অর্ডারকে কেন্দ্রকরে সংর্ঘষ, আহত ৫

প্রকাশিত হয়েছে : ১২:৪৪:২০,অপরাহ্ন ০৫ অক্টোবর ২০১৮ / সংবাদটি পড়েছেন ৪৮১ জন

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় হোটেলে রুটি অর্ডার নিয়ে দু-পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে। বৃস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে শুরু হওয়া সংর্ঘষ চলে বিকাল চারটা পর্যন্ত। সিলেট-জকিগঞ্জ মহাসড়কের নাঈম সিএনজি পাম্পের সামনে সংর্ঘষ চলাকালে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষনিক আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
সূত্র জানায়, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কদমতলী রুচি রেস্টুরেন্টে রুটির অর্ডার করেন সিলেট সিটি করপোরেশনের ২৭ নম্বর ওয়ার্ড খান বাড়ির এক বাসিন্দা। তখন ঐ হোটেলের শ্রমিক রুটি দিতে বেশি সময় নেন। এ নিয়ে ঐ হোটেল শ্রমিক সাথে কথাকাটি হয় খান বাড়ির ঐ বাসিন্দা। এসময় ২৭নং নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাকে মারপিট করেন কদমতলী ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের
কয়েকজন যুবক। মারপিটের পর ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তার এলাকায় গিয়ে মারপিটের কথা বলেন এসময় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এতে করেই দুই পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষের সৃষ্টি হয়। উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে এসএমপি’র দক্ষিণ সুরমা ও মোগলাবাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তাছাড়া আর কোন বড় ধরণের ঘটনা না ঘটতে ঐ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ সূত্র।

এসএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) এম এ ওয়াব বলেন, দক্ষিণ সুরমায় সংর্ঘষের খবর পেয়ে এসএমপি’র মোগলাবাজার ও দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি পুলিশ নিয়ে গিয়ে ঘটনা শান্ত করেন। বর্তমানে পরিস্তিতি শান্ত রয়েছে।

দক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খায়রুল ফজল বলেন, সিলেট সিটি করপোরেশনের ২৬ নম্বর এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের কদমতলী ও পাঠানপাড়া খানবাড়ী লোকদের মধ্যে হোটেলে রুটি অর্ডার নিয়ে সংর্ঘষের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে দক্ষিণ সুরমা ও মোগলাবাজার থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

ডিসেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১