প্রচ্ছদ

নেশায় আসক্ত যুবক রাজিবের করুন পরিনতি নিয়ে নাটক

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

বিনোদন প্রতিবেদকঃ একটি পুরাতন ভবনে একদল তরুণ তরুণী নেশা করছে। ইনজেকশনের মাধ্যমে নেশাদ্রব্য শরীরে ঢুকাচ্ছে। গভীর রাতে মাতাল অবস্থায় বাইক চালিয়ে বাসায় ফিরছে । রাস্তায় পুলিশের সাথে কথা কাটাকাটি এক পর্যায়ে পুলিশকে ঘুষের অফার দিলে পুলিশ উত্তেজিত হয়ে রাজিবকে চড় ধাপ্পর মারে আর বলে পুলিশ রাত জেগে পাহারা দেয় ধান্দার জন্য নয় জনগণের নিরাপত্তার জন্য এত টাকার গরম যখন.

তখন এই টাকা নেশা আর বাইকিং এর পিছনে খরচ না করে নিজেদের ভালো কাজে খরচ করে পরিবর্তন করো, তখন অন্য পুলিশকে বলে ছেড়ে দিতে। রাজিব বাসায় গিয়ে দেখে তার মা অপেক্ষা করতে করতে ঘুমিয়ে পড়েছেন। রাজিব তার রুমে গিয়ে শুয়ে বসে চিন্তা করে আর পুলিশের কথা গুলো কল্পনা করে। এক সময় মনে হয় তার মা অপেক্ষা করে ঘুমিয়ে পড়েছে তখন তার মায়ের কাছে গিয়ে ক্ষমা চায় সে ভালো হয়ে যাবে। এদিকে তার প্রেমিকা মোহনা কিছুতেই রাজিবকে বিশ্বাস করতে পারেনা । একসময় মোহনার বিশ্বাস হয় পরদিন ডাঃ এর কাছে রাজিবকে নিয়ে যায় মোহনা চেকাআপের জন্য। ডাঃ বিভিন্ন পরীক্ষা দেন, পরদিন পরীক্ষার রিপোর্ট নিতে আসে একা রাজিব। ডাঃ চেম্বারে আসে তখনি ধরা পড়ে এইচআইবি ভাইরাসে আক্রান্ত সে। আসমান ভেঙ্গে মাথায় পড়ে রাজিব বলে ডাঃ আমিতো কোন মেয়ের সাথে খারপ কাজ করিনি তাহলে কেন এমন হলো? ডাঃ বলেন দেখেন আপনিতো ড্রাগ নিতেন এক সিরিঞ্জ দিয়ে কয়েকজন মিলে। শুধু মেয়েদের সাথে খারাপ কাজ করলে এইচআইবি হয় তা নয়, এক সিরিঞ্জ দিয়ে কয়েকজনে ড্রাগ নিলে এখান থেকে এই রোগ হতে পারে। এখন সে কি বলবে মোহনাকে, কি জবাব দিবে রিপোর্ট হাতে নিয়ে, রাজিব অন্যত্রে চলে যায়, আর মোহনা রাজিবকে না পেয়ে হন্যে হয়ে খুজতে থাকে।
এ গল্পটি শেষ প্রান্তর নামে জনসচেতনতা মূলক নাটকের ।
এ,এস,এম লিটনের রচনা ও পরিচালনা, শিপন আহমদ’র প্রযোজনায় নাটকে অভিনয় করেছেন শিপন আহমদ, এ,এস,এম লিটন, সুইটি, হেনা আলী
পিংকি, আলামিন, রুবেল, শাহজান,মুহিত, সহ আরো অনেকে।
সার্বিক সহযোগীতা করেছেন, এস,এম,পির সহকারী পুলিশ কমিশনার
নির্মেলেন্দু চক্রবর্তী, দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খায়রুল ফজলসহ থানার পুলিশ সদস্যবৃন্দ। নাটকটি শীঘ্রই দেখতে পাবেন হ্যালো বাংলা ইউটিউব চ্যানেলে।