প্রচ্ছদ

এক প্রেমিককে দিয়ে আরেক প্রেমিককে খুন করে তরুণী

প্রকাশিত হয়েছে : ২:১২:৫৬,অপরাহ্ন ০৯ জুন ২০১৮ | সংবাদটি ২২৪ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

ভারতে খুন এবং ধর্ষণের ঘটনা ভয়ানক আকার ধারণ করেছে। এবার এক প্রেমিককে দিয়ে অন্য এক প্রেমিককে হত্যা করানোর অভিযোগ উঠেছে এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। রেললাইনের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে মৃত বক্তির ক্ষতবিক্ষত দেহ। এ ঘটনায় উত্তেজনা বিরাজ করছে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে। শুক্রবার (০৮জুন) থানার সামনে মৃতদেহ রেখে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ অভিযুক্ত গৃহবধূ এবং তার প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে। খবর বর্তমানের।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত যুবকের নাম অজয় কর (২৬)। অশোকনগর থানা এলাকায় তার বাড়ি। আটকদের নাম সখী চৌধুরী বিশ্বাস এবং বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য। তাদের বাড়িও অশোকনগরে। অজয় একজন প্রতিভাবান উঠতি ক্রিকেটার ছিলেন। অনেক পুরস্কারও জিতেছেন। অজয়ের পরিবারের অভিযোগ, তার (অজয়) সঙ্গে সখীর অনেক দিনের সম্পর্ক ছিল। কিছুদিন থেকৈ অজয় জানতে পারেন, সখীর আরও অনেক পুরুষের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। বর্তমানে বিশ্বজিতের সঙ্গে সখীর প্রেমের সম্পর্ক গভীর হয়েছিল। এটা জানার পর অজয়কে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছিলেন বিশ্বজিৎ। এমনকি, বুধবার বিশ্বজিৎই নাকি অজয়কে বাইকে করে চাপিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন। তারপর থেকে অজয় আর বাড়ি ফেরেননি।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, বুধবার রাতেই অশোকনগর ৩ নম্বর রেলগেট এলাকা থেকে একটি ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।বৃহস্পতিবার খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন হাসপাতালে গিয়ে অজয়ের মৃতদেহ বলে চিহ্নিত করেন। তারপরই অভিযোগ ওঠে, বিশ্বজিৎকে দিয়ে অজয়কে খুন করিয়েছেন সখী। ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে চালানোর জন্য লাইনের ধারে দেহ ফেলে দেওয়া হয়।

শুক্রবার ময়নাতদন্তের পর মৃতদেহ অশোকনগর থানায় নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন পরিবারের লোকজন এবং প্রতিবেশীরা। থানার সামনে রাস্তা অবরোধ করেও বিক্ষোভ চলে। এক পুলিশ অফিসার বলেন, যে দু’জনের বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ, সেই সখী চৌধুরী বিশ্বাস ও বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। সমস্ত দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে।



দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

আগষ্ট ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১