প্রচ্ছদ

দাদি মারা যাওয়ার দিনে টাইয়ের ৪ উইকেট, তবু হারলো পাঞ্জাব

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

মঙ্গলবার কী দারুণ বোলিংটাই না করলেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অ্যান্ড্রু টাই! রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। এর মধ্যে ৩ উইকেট এসেছে শুধু শেষের ওভারেই। গতকাল প্রতিটি উইকেট নেওয়ার পরে এক কৌতূহলোদ্দীপক দৃশ্যের জন্ম দেন টাই। একটা করে উইকেট নিচ্ছেন আর হাতে বাঁধা আর্মব্যান্ডে চুমু খাচ্ছেন! রহস্যটা কী? পরে জানা গেল মৃত দাদির স্মরণে মঙ্গলবার এই কাজ করেছেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার।

দাদিকে হারানোর এমন অশ্রু ঝরা দিনেও বোলিংয়ে গোলা ছোড়ে দারুণ পেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছেন টাই। কিন্তু জেতাতে পারলেন না দলকে। রাজস্থানের বিপক্ষে গতকাল তাঁর দল পাঞ্জাব হেরেছে ১৫ রানে।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান করে রাজস্থান রয়্যালস। জবাবে জবাবে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানেই থেমে যায় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। আজকের হারে ১০ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে পাঞ্জাব। সমানসংখ্যক ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থান থেকে টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসল রাজস্থান।

গতকাল টসে জিতে শুরুতে ব্যাটিং বেছে নেয় রাজস্থান। ওপেনার জস বাটলারের ব্যাটের ওপর ভর করে ১৫৮ রান সংগ্রহ করে তারা। ৫৮ বলে ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৮২ রান করেছেন বাটলার।

ওপেনিং জুটিতে আজিঙ্কা রাহানে ও জস বাটলার ২২ বলে করে ৩৭ রান। ব্যক্তিগত ৯ রানে রাহানে আউট হয়ে ফিরে যাওয়ার পরে ওয়ান ডাউনে আসা গৌতম করেন মাত্র ৮। বাটলারের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে সঞ্জু স্যামসন ভালো প্রতিরোধ গড়ে তুলেন।

তাদের জুটিতে আসে ৫৩ রান। ১৪.৩ ওভারে দলীয় ১১৭ রানের সময় ব্যক্তিগত ২২ রান করা স্যামসনকে আউট করে ফেরান মুজিব উর রহমান। এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে থেকে সতীর্থদের এই আসা যাওয়ার মিছিলটা দেখছিলেন বাটলার। ১৭ তম ওভারে মুজিবের বলেই স্ট্যাম্পিং হয়ে দলীয় ১৩২ রানে ফিরে যান বাটলার।

ইংলিশ এই ব্যাটসম্যান ফেরার পর রানের গতিটা আর সেভাবে বাড়াতে পারেননি রাজস্থানের ব্যাটসম্যানরা। ফলে ৬ উইকেট হাতে নিয়েও শেষ ২২ বলে তারা তুলতে পারে মাত্র ২৬ রান। টাইয়ের শেষ ওভারেই তারা হারিয়েছে ৩ উইকেট। সব মিলিয়ে আজ ৪ উইকেট পেয়েছেন টাই। আফগানিস্তানের অফ স্পিনার মুজিব নিয়েছেন ২ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানেই থেমে যায় পাঞ্জাব। আগের ম্যাচে অপরাজিত ৮৪ রান করা লোকেশ রাহুল আজও ছিলেন ৯৫ রানে নটআউট। কিন্তু তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি কেও। গেইল করেছেন মাত্র ১ রান। রাহুলের ৯৫ রান ছাড়া দুই অঙ্কের ঘরে রান নিতে পেরেছেন কেবল স্টোইনিস। তাও মাত্র ১১ রান। এতেই তো বোঝা যায় পাঞ্জাবের ব্যাটিংয়ের কি করুণ অবস্থা।