প্রচ্ছদ

সেলফি তুলে মিলছে অভিনেত্রী হওয়ার সুযোগ

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:৩০:৪৬,অপরাহ্ন ১৯ এপ্রিল ২০১৮ | সংবাদটি ১৮২ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

বহুল প্রতীক্ষিত ‘আলতা বানু’ সিনেমাটি ২০ এপ্রিল মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এই উপলক্ষে আয়োজন করা হয় সেলফি প্রতিযোগীতা। কয়েক হাজার সেলফির ভিড়ে বিজয়ী হন ১০ জন। বুধবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২ টায় ‘আলতা বানু’ মুক্তি উপলক্ষে চ্যানেল আইতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। এছাড়া জানানো হয় বিজয়ীদের মধ্যে একজন পাবেন অরুণ চৌধুরীর পরিচালনায় অভিনয় করার সুযোগ।

ঢাকা ও ঢাকার বাইরে থেকে ১০ জন বিজয়ীর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পাঁচ জন। তারা প্রত্যেকেই বুঝে নেন আকর্ষণীয় পুরস্কার। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ও চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মেট্রোসেম গ্রুপের এমডি মোহাম্মদ শহিদ উল্লাহ, অভিনেত্রী দিলারা জামান, নরেশ ভুঁইয়া, নাট্যকার বৃন্দাবন দাস, ‘আলতা বানু’র পরিচালক অরুণ চোধুরীসহ অনেকে।

ঢাকার বাইরে অবস্থান করা ১০ জন বিজয়ীর মধ্যে পাঁচ জন উপস্থিত হতে পারেননি। যারা বিজয়ী হয়েছেন তারা হলেন সাভারের তামি রহমান, মোহাম্মদপুরের ইয়াসমিন বুলা, গাজীপুরের নাহের নিলা, মিরপুরের সমাপ্তি সওগত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলের মাইজি তৃণা ও কল্যাণপুরের সুমাইয়া ইসলাম। বিজয়ীরা পেয়েছেন আকর্ষনীয় বৈশাখী গিফট বক্স। পাশাপাশি ‘আলতা বানু’ সিনেমা দেখার টিকেট।

বিজয়ী ইয়াসমিন বুলা বলেন,‘ সিনেমার প্রচারণা নিয়ে যে এমন ব্যতিক্রম সেলফি প্রতিযোগিতা হতে পারে, তা ভাবনাতেও ছিল না। পুরস্কার পেয়ে খুব ভালো লাগছে। আলতা বানু অবশ্যই হলে গিয়ে দেখবো। পাশাপাশি বন্ধুবান্ধব সবাইকে হলে যাওয়ার জন্য উৎসাহিত করবো। ধন্যবাদ ‘আলতা বানু’ টিমকে এতো চমৎকার আয়োজন করার জন্য।’

কথাসাহিত্যিক ফরিদুর রেজা সাগরের গল্প অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্র ‘আলতা বানু’। ইমপ্রেস টেলিফিল্মের প্রযোজনায় ছবিটি পরিচালনা করেছেন অরুণ চৌধুরী। যেখানে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক আনিসুর রহমান মিলন ও চিত্রনায়িকা জাকিয়া বারী মম, ফারজানা রিক্তা। আরো অভিনয় করছেন মামুনুর রশীদ, দিলারা জামান, রাইসুল ইসলাম আসাদ ও আহসানুল হক মিনু।

আলতা ও বানু নামের দুই বোনের জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে পথ চলেছে এ ছবির গল্প। আর মিলন আছেন গ্রামীণ যুবকের চরিত্রে। পাত্রীকে নিয়ে কিছু গ্রামীণ কুসংস্কার ছড়িয়ে পড়লে হঠাৎ হলুদের দিনই ভেঙে যায় সেই বিয়ে। সেই বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর কষ্ট পান মিলন। এরপরই ঘটতে থাকে নানা ঘটনা।