প্রচ্ছদ

অবস্থান কর্মসূচি থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি ( ভিডিও)

প্রকাশিত হয়েছে : ১:০০:৫২,অপরাহ্ন ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | সংবাদটি ২৬২ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ মুখর হয়ে উঠেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শুরু হওয়া অবস্থান কর্মসূচি থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন তারা।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো এই কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। এর আগে গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছিলেন তারা। এই কর্মসূচিতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারাও অংশ নিয়েছেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর কারণে তার শক্তি অনেক বেড়ে গেছে। দেশনেত্রীকে কারাগার থেকে এ দেশের মানুষ অতিসত্বর বের করে আনবো।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা আলমগীর বলেন, সরকার মনে করেছে- দলের ভেতরে ভাঙন শুরু হবে। নেতাকর্মীর শূণ্যতায় ভুগবে বিএনপি। কিন্তু লক্ষ লক্ষ মানুষ বেগম খালেদা জিয়ার পেছনে রয়েছেন। আগের চেয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা আরো অনেক বেশি শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে জনমানবশূন্য একটি পরিত্যক্ত কারাগারে পাঠানে হয়েছে। সারা দেশে নেতাকর্মীদের নামে প্রচুর মামলা দেয়া হয়েছে। মামলা করা হয়েছে ১৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার নৈতিক কোন অধিকার নেই, আগেও ছিল না।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, জয়নাল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ-সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান প্রমুখ।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এলডিপির শাহাদত হোসেন সেলিম, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, এনপিপির মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, এনডিপির মঞ্জুর হোসেন ঈশা, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান নিরব, পিজিপির আব্দুল মতিন সাউদ প্রমুখ।

পুলিশি বাধার কারণে কয়েক বার অবস্থান কর্মসূচির ভেন্যু পরিবর্তন হয়। প্রথমে প্রেসক্লাব ও পরে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অবস্থান কর্মসূচি হওয়ার কথা থাকলেও অবস্থান কর্মসূচী পালন করতে দেয়নি পুলিশ। পরে তা নয়াপল্টনে অনুষ্ঠিত হয়। অবস্থান কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন, বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা।

Media it

দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০