প্রচ্ছদ

শীতকালে চুলের যত্ন

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

শীতকালে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ কমে যায়। বাতাসে বাড়তে থাকে ধুলোবালির পরিমাণ। এতে করে চুল হারিয়ে ফেলে তার স্বাভাবিক মসৃণতা। হয়ে যায় অনেক রুক্ষ। এতে চুল খুব সবজেই নোংরা হয়ে যায়। শীতকালে ত্বকের যত্ন নিলেও চুলের যত্নে সাধারণত আমরা অবহেলা করে থাকি। এর ফলে চুলে খুশকী পড়াসহ আরও জটিল সমস্যা দেখা দেয়। শুধু তাই নয়, শীতকালে চুলের যত্নে অবহেলার কারণে ফাংগাল ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়। তাই শীতে চুল মসৃণ ও ঝলমলে রাখতে চাই বিশেষ যত্ন।

পর্যাপ্ত পানি পান:
দেহে ঠিকভাবে রক্ত সঞ্চালন হওয়া খুব প্রয়োজন। আর তার জন্য অবশ্যই বেশি করে পানি পান করা দরকার। শীতকালে হাইড্রেটেড থাকলে স্ক্যাল্পেও আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

খাবার মেনু:
খাবার মেনু গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার খান। আখরোট ও বাদামে প্রচুর ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিড রয়েছে। এছাড়াও ডিম, তেলযুক্ত মাছ, মাংস, চিজ, ফল ইত্যাদি প্রোটিনযুক্ত খাবার খান। দুধ বা দুগ্ধজাত খাবার খেলে চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে। তাই খাবার মেনুতে যেন অবশ্যই এ ধরণের খাবার থাকে।

নারকেল তেল-শ্যাম্পু ব্যবহার:
মাথায় ভালভাবে নারকেল তেল মাখুন। তার পরে আধ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে নিন। সালফেট নেই এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। স্ক্যাল্পে বেশি জোরে শ্যাম্পু দিয়ে ঘষবেন না। এতে স্ক্যাল্প আরও শুষ্ক হয়ে যায়।

চুলে রং করাকে না বলুন:
শীতের সময়ে একেবারেই চুলে রং করা বা স্ট্রেট বা স্মুদিং করবেন না। এর ফলে খুশকি ও চুল পড়ার সমস্যাতে ভুগতে পারেন আপনি।

কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টকে না বলুন:
চুলের সমস্যা এড়াতে অনেকেই বিউটি পার্লার থেকে কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করে থাকেন। এ ধরণের কেমিক্যাল ব্যবহার করতে নিষেধ করছেন বিশেষজ্ঞরা। কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টে চুলের সাময়িক সৌন্দর্য বাড়লেও, তা স্থায়ী হয় না।