প্রচ্ছদ

লালন-পালনের খরচ ফেরত দিতে সন্তানকে নির্দেশ

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:২২:১২,অপরাহ্ন ০৪ জানুয়ারি ২০১৮ | সংবাদটি ১৯৮ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

লালন-পালন ও শিক্ষিত করে তুলতে মায়ের যে অর্থ খরচ হয়েছে তা ফেরত দিতে সন্তানকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পেশায় দন্ত চিকিৎসক ওই সন্তানকে ৭ লাখ ৪৪ হাজার মার্কিন ডলার দিতে তাইওয়ানের সর্বোচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ১৯৯০ সালে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ার পর লু নামের ওই নারী নিজের দুই সন্তানকে নিয়ে বাস করছিলেন। বৃদ্ধ বয়সে সন্তানদের কেউ তাকে দেখবে না এই আশঙ্কায় ভুগছিলেন লু। সন্তানরা ২০ বছরে পা দিলে তিনি তাদের সঙ্গে চুক্তি করেন যে, তারা উভয়েই তাদের আয়ের ৬০ শতাংশ মাকে দিতে বাধ্য থাকবে।

লু অভিযোগ করেছেন, সন্তানরা প্রেমের সম্পর্কে জড়ানোর পর তাকে অবহেলা করতে শুরু করে। এমনকি তাদের যেন বিরক্ত করা না হয়, সেজন্য তারা উকিল নোটিশও পাঠায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আট বছর আগে চুক্তি অনুযায়ী অর্থ পেতে সন্তানদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। আপোষ করতে বড় ছেলে ইতিমধ্যে মাকে ৫০ লাখ তাইওয়ানিজ ডলার দিয়েছে। তবে ছোটে ছেলে দাবি করেছে, চুক্তির মাধ্যমে তাদের মা সন্তান পালনের যে উত্তর প্রথা তা লঙ্ঘন করেছেন। নিম্ম আদালত ছোট ছেলের পক্ষে রায় দিলে লু উচ্চ আদালতে আপিল করেন।

সুপ্রিম কোর্ট রায়ে জানিয়েছে, চুক্তিটি যখন করা হয়েছিল তখন দুই ছেলেই প্রাপ্তবয়স্ক ও চুক্তির যোগ্যতা সম্পন্ন ছিল। ৪১ বছরের চু এখন পেশায় দন্ত চিকিৎসক এবং মায়ের অর্থ ফেরত দিতে সক্ষম। তাই তাকে লালন-পালন ও শিক্ষিত করে তোলার খরচ হিসেবে ৭ লাখ ৪৪ হাজার মার্কিন ডলার মাকে দিতে হবে।



দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

জুলাই ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১