প্রচ্ছদ

জিন্স পরিধানে হারাবে দাম্পত্য সুখ!

প্রকাশিত হয়েছে : ১২:৪১:৪৩,অপরাহ্ন ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ২৫৮ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

ছেলে-বুড়ো, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে গোটা বিশ্বই এখন জিন্স প্যান্টের দখলে। নানা রূপে জিন্স মানুষের মন জয় করেছে কয়েক দশক আগেই। অন্য পোশাকে অভ্যস্তরাও মাঝে মধ্যেই জিন্স বেছে নেন। স্টাইল বদলায় কিন্তু জিন্স থেকেই যায়। তবে জিন্সের বিপদও আছে। কেননা জিন্স পরিধানে আপনি হারাতে পারেন আপনার দাম্পত্য সুখ! চলুন জেনে নেওয়া যাক জিন্স সম্পর্কে কিছু তথ্য-

১. প্রথমেই খেয়াল রাখতে হবে জিনসটি কী কাপড়ে তৈরি। সুতির জিনসই পরা উচিত। কিন্তু অনেক সময়ই সুতির সঙ্গে টেরিকটন জিন্সও বাজারে পাওয়া যায়। সেগুলি ত্বকের জন্য মোটেও ভালো নয়।

২. অনেকেই এক্কেবারে শরীর চাপা লো-ওয়েস্ট জিন্স পরেন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, শরীরের সঙ্গে একেবারে সেঁটে থাকায় রক্ত চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। যা থেকে স্নায়ু-ঘটিত সমস্যা হতে পারে।

৩. ‘স্কিনি জিনস’ পুরুষদের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকারক। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের স্বাভাবিক ক্রিয়ায় প্রভাব ফেলে। মূত্রনালি, মূত্রথলিতে ইনফেকশন ছাড়াও অণ্ডকোষের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার ভয় থাকে। চিকিৎসকরা বলেন, বীর্যধারণ ক্ষমতাও কমিয়ে দিতে পারে স্কিন টাইট জিন্স।

৪. এমন জিন্স পরা উচিত, যা শরীর সঙ্গে প্রবলভাবে সেঁটে থাকবে না। শরীর ও প্যান্টের মধ্যে জায়গা থাকা জরুরি। আঁটোসাঁটো জিনস কিডনিরও ক্ষতি করতে পারে।

৫. মেয়েদের ক্ষেত্রে স্কিন টাইট জিন্স অত্যন্ত ক্ষতিকারক। এখন ‘লো-ওয়েস্ট’ জিন্স খুব চলছে। কিন্তু গবেষণা বলছে, টাইট, স্কিনি লো-ওয়েস্ট জিন্স স্নায়ু বিকল করে দিতে পারে। মাঝে মাঝ পা অবশ হয়ে যেতে পারে। টাইট জিন্সের অন্যান্য সমস্যা তো আছেই।

৬. টাইট জিন্স বেশি সময় পরে থাকলে যৌনাঙ্গের ওপর অস্বাভাবিক চাপ তৈরি হয়। এই ধরনের জিন্স পরলে মেয়েদের বিশেষ ভঙ্গিতে পা ভাঁজ করে বসতে হয়। সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, পা ভাঁজ করে বসা শরীরের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর।



দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

জুলাই ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১