প্রচ্ছদ

‘টাকা দে, নইলে মেরে ফেলব’

প্রকাশিত হয়েছে : ২:৩৭:২৬,অপরাহ্ন ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ২৯৪ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

দুই মাসের বেশি সময় ধরে নিখোঁজ থাকা সাংবাদিক উৎপল দাস ফিরে এসেছেন। মঙ্গলবার রাতে তাকে নারায়ণগঞ্জের ভুলতা এলাকায় ফেলে রেখে যাওয়া হয় এবং খবর পেয়ে পুলিশ তাকে স্থানীয় ফাঁড়িতে নিয়ে যায়।পরে নরসিংদী থেকে তার পরিবারের সদস্যরা সেখানে পৌঁছালে উৎপল দাসকে তাদের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। তবে কারা তাকে ধরে নিয়েছিল, কোন এলাকায় আটকে রাখা হয়েছিল- সে বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারেননি তিনি।

উৎপল জানান, টাকার জন্যই তাকে অপহরণ করা হয়েছিল। আসলে কোথায় ছিলাম সেটা নিজেও জানিনা। আমাকে চোখ বেধে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। ধানমন্ডীতে একটি রেস্তোরায় খাওয়া-দাওয়ার পর সেখান থেকে বের হলে একটি গাড়িতে করে তাকে তুলে নিয়ে যায় একদল লোক।কোথায় রাখা হয়েছিল কিছু ধারণা করতে পারেন কি-না জানতে চাইলে উৎপল দাস বলেন, আমাকে নেয়া হয়েছিল ধানমন্ডী থেকে। কিন্তু কোথায় নেয়া হয়েছিল কিভাবে নেয়া হয়েছিল এর বাইরে আমি কিছু জানিনা। আমাকে চোখে বেধে গাড়ি করে নিয়ে যাওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন একটা জঙ্গলের মধ্যে একটা টিন-শেড ঘরের মধ্যে আমাকে আটকে রাখে। প্রথমদিকে মাঝে মাঝে বলে তোর কাছে অনেক টাকা আছে, তুই টাকা দে।টাকা দিলে তোকে ছেড়ে দেব। নইলে মেরে ফেলব।

তিনি বলেন, “আমাকে তারা বলে, তোর ফোনে চার্জ আছে তুই বাড়ি চলে যা। এই। আমাকে বললো যে পিছনে ফিরে তাকাবি না। আমি আর পেছনে ফিরে তাকাইনি। আর বললো যে, ৫০ গজ পেছনে একটা পেট্রোল পাম্প আছে, আমি সেই পেট্রোল পাম্পে চলে যাই এবং গিয়ে বাড়িতে ফোন করি”।

উল্লেখ্য, অনলাইন নিউজ পোর্টাল পূর্বপশ্চিমবিডি ডট নিউজের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক উৎপল (২৯) গত ১০ অক্টোবর দুপুরে মতিঝিলের অফিস থেকে বের হওয়ার পর থেকে তার খোঁজ মিলছিল না। মঙ্গলবার রাত পৌঁনে ১২টার দিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার আধুরিয়া শাহজালাল সিএনজি ফিলিং স্টেশনে একটি মাইক্রোবাস থেকে তাকে নামিয়ে দেয়া হয়।

Media it

দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০