প্রচ্ছদ

বিক্ষোভের মুখে পাকিস্তানের আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:২৫:২৬,অপরাহ্ন ২৭ নভেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ১৩৭ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

ধর্ম অবমাননার অভিযোগে বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করেছেন পাকিস্তানের আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদ। দেশটির প্রধানমন্ত্রী শহীদ খাকান আব্বাসির কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি।

আজ সোমবার পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন পিটিভির খবরে এ কথা জানানো হয়েছে। এরআগে রোববার রাতে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সরকারের সমঝোতার অংশ হিসেবে তিনি পদত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছিলেন।

পিটিভি জানায়, রাষ্ট্রকে সংকট থেকে বের করতে আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদ পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বিক্ষোভকারীরা সরকারের সঙ্গে সমঝোতার অংশ হিসেবে আজ এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অবরোধ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেবেন বলে জানা গেছে। সকালেই ফায়জাবাদে বিক্ষোভকারীদের জিনিসপত্র গুটিয়ে ফেলতে দেখা গেছে। অন্যদিকে পুলিশকেও অবরোধে অপসারণ করতে দেখা গেছে। তবে বিক্ষোভকারীরা বলেছেন, সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়ার আগে সড়ক খুলে দেবেন না তারা।

উল্লেখ্য, হযরত মুহাম্মদ (সা.) শেষ নবী বা খতমে নবুয়ত মানার বিষয়ে পাকিস্তানের নির্বাচনী আইন অনুযায়ী অঙ্গীকার করতে হয়। সম্প্রতি সংশোধিত ‘নির্বাচনী আইন-২০১৭’ থেকে এ বিষয়টি বাদ পড়ে।

এ ঘটনায় পাকিস্তানের পার্লামেন্টসহ রাজনৈতিক অঙ্গনে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পরে খতমে নবুয়তের বিষয়ে অঙ্গীকারের বিষয়টি ভুলক্রমে বাদ পড়েছে জানিয়ে এটি পুনর্বহাল করে পার্লামেন্ট।

কিন্তু পাকিস্তানের ইসলামপন্থী দলগুলো আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদকে এই ভুলের জন্য দায়ী করে তার পদত্যাগ ও বিচারের দাবিতে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের ফয়জাবাদের প্রধান সড়ক অবরোধ করে তিন সপ্তাহ ধরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে।

শনিবার সকালে হঠাৎ করেই বিক্ষোভকারীদের জোর করে অপসারণের চেষ্টা করে পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী। এ সময় উভয়পক্ষে সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে পুলিশসহ অন্তত ৬ জন নিহত এবং প্রায় ২৫০ জন আহত হয়েছেন। এর পর রোববারও ইসলামাবাদের রাস্তায় দফায় দফায় অবরোধকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়।

সহিংসতার মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ইসলামাবাদে সেনা মোতায়েনের কথা বলে পাকিস্তান সরকার। সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া শক্তি প্রয়োগ না করে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানান।

পরে বিচার বিভাগের প্রধান কার্যালয়, সংসদ ভবন, প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন, দূতাবাসসহ ঝুঁকিপূর্ণ স্থানগুলোতে মোতায়েন করা হয়।

দেশটির সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসিসহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহসান ইকবাল ও গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান নাভিদ মুখতারের সঙ্গে সঙ্গে প্রায় ২ ঘণ্টা বৈঠক করেন।

ওই বৈঠকে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছানোর লক্ষ্যে সেনা ব্যবহারের বিরুদ্ধে সম্মত হন নেতারা। এর পর বিক্ষোভকারী দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে বসে আইনমন্ত্রীর পদত্যাগের বিষয়ে সমঝোতা হয়।

Media it

দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০