প্রচ্ছদ

রান্না করতে দেরি হওয়ায় স্ত্রীর মাথা কেটে নিয়েছে স্বামী!

প্রকাশিত হয়েছে : ৭:৪৫:০৮,অপরাহ্ন ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ৫৬৫ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

স্ত্রী রান্নায় দেরি করায় বদরাগী স্বামীর তর সয়নি। তাই চুলার সামনে বসে থাকা স্ত্রী মুনেরা বিবির (৪৫) চুলের মুঠি ধরে ছুরিকাঘাতে কেটে ফেলল মাথা।

তারপর, শুক্রবার দুপুরে মুনেরার ছিন্ন মস্তক নিয়ে উধাও হয়ে গিয়েছিল স্বামী সাহেব শেখ। তবে, রক্তাক্ত ছুরি আর হাতের মুঠোয় ধরা স্ত্রীর মাথা নিয়ে পালানোর পথেই ধরা পড়ে যায় সাহেব। গ্রামবাসীদের তাড়া খেয়ে পাট খেতে নেমে পড়েছিল সে। পাট খেতে ঢুকে লুকিয়ে পড়ার চেষ্টা করেও পার পায়নি অবশ্য। তাকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে প্রতিবেশীরা।

তবে, ব্যাপারটা এত সহজে হয়নি। পাট খেতে তাকে ধরতে গেলেই গ্রামবাসীদের দিকে মারমুখী হয়ে তেড়ে গিয়েছিল তিনি। ঘন্টা দুয়েক এই লুকোচুরির মাঝেই খবর গিয়েছিল দেশটির পুলিশের কাছে। এক পুলিশ কনস্টেবল হাতের লাঠি ছুঁড়ে তার হাতের ছুরিটা হাতছাড়া করতেই গ্রামবাসীরা ঝাঁপিয়ে ধরে ফেলে তাকে। তবে, এই সময়ে স্ত্রীর মুণ্ডটি সে কোথাও ছুঁড়ে ফেলে দেয়। পুলিশ এখন সেই ছিন্ন-মাথার খোঁজ করছে।

গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য টুকটুকি বিবি বলছেন, যার সঙ্গে এত দিন ঘর করছে, সাত-সাতটি ছেলেমেয়ে মাকে এ ভাবে খুন করা যায়। তবে, তিনি ছেলেমেয়েরাও এক বাক্যে জানিয়েছেন, বাবা তাদের বড়ই রগচটা। খেপে গেলে উন্মত্ত হয়ে যায়।

তাদের প্রত্যেকের দাবি, ‘ফাঁসি’ হওয়াই উচিৎ সাহেব শেখের। পেশায় রাজমিস্ত্রি সাহেব এ দিন বাড়ি ঢুকে দেখে রান্না তখনও হয়নি। চিৎকার করতে থাকে সে। তার পুত্রবধূ সখিনা খাতুন বলেন, ‘‘বাবা মেরেই ফেলব বলে রান্নাঘরের দিকে ছুটে গেল। খানিক পরে দেখি মায়ের মুণ্ডহীন দেহ পড়ে রয়েছে। ’’ সূত্র: আনন্দবাজার।



দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

মে ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১