প্রচ্ছদ

‘নিরাপত্তা পরিষদের বিবৃতি প্রত্যাবাসন আলোচনা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে’

প্রকাশিত হয়েছে : ২:০২:৩০,অপরাহ্ন ০৮ নভেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ১৩৭ বার পঠিত

সিলেট নিউজ ওয়ার্ল্ড ডটকম

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ গত সোমবার এক বিবৃতিতে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর অতিরিক্ত ক্ষমতা চর্চা বন্ধের আহ্বান জানায়। একই সঙ্গে রাজ্যটিতে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্যাতনের বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

নিরাপত্তা পরিষদের বিবৃতি পালিয়ে আসা ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে ফেরত নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনা ‘মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত’ হবে বলে দাবি করেছে মিয়ানমার। এতে প্রত্যাবাসন প্রশ্নে বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনায় বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে বলে মনে করছে মিয়ানমার।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আজ বুধবার মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির কার্যালয় থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এই দাবি করা হয়।

সুচি বলেন, কেবল বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের দ্বিপক্ষীয় চেষ্টাতেই এ সমস্যার সমাধান আসতে পারে বলে তার দেশ বিশ্বাস করে।

সু চির কার্যালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, মিয়ানমার ও বাংলাদেশ যে সংকট পার করছে, তা কেবল দ্বিপক্ষীয় আলোচনার মধ্য দিয়ে নিরসন করা সম্ভব। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারের আলোচনা চলছে। এ বিষয়ে আলোচনার জন্য বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে ১৬ নভেম্বর মিয়ানমার সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

মাহমুদ আলীর সম্ভাব্য মিয়ানমার সফরের একদিন আগে বাংলাদেশ সফরে আসবেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। তার সফরের অন্যতম এজেন্ডা রোহিঙ্গা সংকট।

গত ২৫ অগাস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর দমন অভিযান শুরুর পর থেকে সোয়া ছয় লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে। এই সহিংসতাকে ‘জাতিগত নিধন’ হিসেবে চিহ্নিত করে এর সমালোচনা করে আসছে জাতিসংঘ।



দেশ-বিদেশের পাঠক

আর্কাইভ

মে ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১