প্রচ্ছদ

সিলেট আওয়ামী লীগের সামনে ‘ডেডলাইন’!

www.sylhetnewsworld.com

সম্মেলন আয়োজনের জন্য কেন্দ্র থেকে চ‚ড়ান্ত ডেডলাইন পেয়ে নড়চড়ে বসেছে সিলেট আওয়ামী লীগ। আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং এ দুই ইউনিটের অধীনস্থ সকল শাখার সম্মেলন সম্পন্ন করতে নির্দেশনা এসেছে দলের হাইকমান্ড থেকে। এরই প্রেক্ষিতে সিলেট আওয়ামী লীগে শুরু হয়েছে সম্মেলনের তোড়জোড়। এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণে ডাকা হয়েছে বর্ধিত সভা। সেখানেই সম্মেলনের বিষয়ে হবে চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ ২০১১ সালের ২১ নভেম্বর সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগে চার সদস্যবিশিষ্ট কমিটি আসে। পরদিন উভয় শাখায় ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। তিন বছর মেয়াদী এ কমিটি ২০১৪ সালের নভেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালনের কথা ছিল। কিন্তু এরপর আরো প্রায় পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিই চালিয়ে যাচ্ছে দায়িত্ব। এরকম অবস্থায় সাংগঠনিক কার্যক্রমে কিছুটা ধীরগতি চলে এসেছে বলে তৃণমূল নেতাকর্মীদের অভিযোগ।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে দেশের সকল ইউনিটে দলের সম্মেলন শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছেন সভানেত্রী শেখ হাসিনা। এরই প্রেক্ষিতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর দেশের সকল জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীলদের কাছে চিঠি পাঠান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। জেলা ও মহানগর শাখার আওতাধীন প্রতিটি মেয়াদোত্তীর্ণ ইউনিটের সম্মেলন আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে চিঠিতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণও এই চিঠি পেয়েছেন। সর্বশেষ গত ২৬ সেপ্টেম্বর সিলেট সফরে এসে ওবায়দুল কাদের ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্মেলন শেষ করতে বলে যান। কেন্দ্রের চ‚ড়ান্ত নির্দেশনা পেয়ে সিলেট আওয়ামী লীগের নেতারা সম্মেলন নিয়ে তোড়জোড় শুরু করেছেন বলে জানা গেছে। দায়িত্বশীল নেতারা নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই সম্মেলন আয়োজন করতে চাইছেন। এরই প্রেক্ষিতে আগামী বুধবার পৃথকভাবে বর্ধিত সভা ডেকেছে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ।

বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমদ এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন বলে আওয়ামী লীগ নেতারা জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক জগলু চৌধুরী বলেন, ‘সিলেটে ৬টি উপজেলায় আমাদের কমিটি আছে, বাকি ৭টিতে কমিটি করতে হবে। এছাড়া ৪টি পৌর কমিটি এবং বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন কমিটিও গঠন করতে হবে। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে এসব কমিটি গঠনের কাজ শেষ হবে বলে আশাবাদী।’

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘সম্মেলন আয়োজনের প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। কেন্দ্রের নির্দেশনার আলোকে সব করা হবে।’

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘সম্মেলনের বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে বর্ধিত সভা আহবান করা হয়েছে। এ সভাতেই পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে।’

বিনোদন

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১